ইন্টারনেট দিয়ে কথা বলার নিরাপদ অ্যাপস | Technology Bangla

Technology Bangla
Top 3 Video Video Calling Apps For Us |
 Technology Bangla


আমরা অনেকেই আজকাল মোবাইল ফোন ব্যবহার করে থাকি। তার সাথে ইন্টারনেট এর চাহিদা তো রয়েছে। ইন্টারনেট ব্যবহার করে মানুষ অনেক কিছু করতে পেরেছে।

কিন্তু  দিন শেষে ইন্টারনেট এর সবচেয়ে বড় গুরুত্ব পূর্ণ একটি অংশ হলো  যোগাযোগ ব্যবস্থা। ইন্টারনেট দিয়ে অনেক ভাবে যোগাযোগ করা যায়। এটা আমরা সবাই জানি।

কিন্তু - আজ এই আর্টিকেল টি শুধু তাদের জন্য, যারা কিনা একদম নিরাপদ সফটওয়্যার চান।

যেই সফটওয়্যার ব্যবহার করে। আপনি অডিও এবং ভিডিও কল এর মাধ্যমে কথা বলতে পারবেন তার সাথে চ্যাট করার অন্য অন্য সুবিধা রয়েছে।

আমি একদম শিউর দিয়ে বলতে পারবো। আপনি যদি এই ধরেন সফটওয়্যার ব্যবহার করেন। তাহলে একদম নিরাপদ থাকবেন।

আপনার এই আকাউন্ট গোলা কেউ হ্যাক করতে পারবে না।

আমাদের প্রথম সফটওয়্যার টি রয়েছে। Whatsapp

1 - Whatsapp হলো : একটি অনলাইন যোগাযোগব্যবস্থা। যেখানে আপনি চ্যাট করতে পারবেন। চ্যাট করার সময় অন্য অন্য যেই সুবিধা গোলা থাকছেই। যেমন : অডিও রের্কড, ছবি, তারপর ভিডিও ও স্টিকার ও অন্য অন্য সুবিধা তো রয়েছে।

Whatsapp - এর কিছু সিকিউরিটি ব্যবস্থা : এখানে আপনার জয়েন দিতে হলে। আপনার নাম্বার দিতে হবে। আপনার নাম্বার দেওয়ার শেষ হলে, আপনার সেই নাম্বারে একটি মেসেজ যাবে। সেই নাম্বার টি যদি আপনার ফোন এ থাকে তাহলে আপনাকে কষ্ট করে। সে নাম্বার টি বসাতে হবে না। আর যদি অন্য কোনো মোবাইল এ থাকে তাহলে সেখান থেকে কোড টি কালেক্ট করে। তারপর বসাতে হবে। এরপর আপনার নাম এবং আপনার ছবি বসাতে হবে। ছবি বসানো শেষ হলে : আপনার একটি google আকাউন্ট এর সাথে কানেষ্ট করে দিন । এখানে কানেষ্ট করলে যা হবে - আপনি যখন এই সফটওয়্যার টি ডিলেট দিয়ে, আবার ইন্সটল করবেন। তখন আপনার আকাউন্ট লগিন করলে। আপনার আগে যা ছবি , মেসেজ এবং অন্য অন্য যা জিনিস পএ আছে। সব গোলা ঠিক আগে জায়গা তে চলে আসবে। কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়ায়।


এখানে আর একটি বিশেষ ব্যবস্থা হলো : আপনি এখানে ইচ্ছা করলে। বিশেষ ভাবে কোনো একটি পিন নাম্বার দিয়ে রাখতে পারবেন। এখানে পিন নাম্বার দেওয়ার পর যা হবে - আপনি যখন আপনার Whatsapp টি ঢুকবেন। তখন আপনার সেই পিন টি দিতে হবে। যার কারণে আপনার whatsapp অন্য কেউ ইচ্ছা করলেই সব কিছু দেখতে পাবে না।

আর আপনার আকাউন্ট কেউ যদি হ্যাক ও করতে চাই। তাহলে সে আপনার সব স্টেপ পূরণ করলে ও আপনার পিন নাম্বার এর জন্য সে ঢুকতে পারবে না সফল ভাবে। যেখানে অনেক অন্য অন্য সফটওয়্যার এর সমস্যা দিতো।

আমি ১০০% শিউর দিয়ে বলতে পারবো। আপনার whatsapp হ্যাক করা মত কোনো সিস্টেম নাই। আপনি একদম নিরাপদ ভাবে ব্যবহার করতে পারেন। কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়ায়। 


আমাদের ২য় সফটওয়্যার টি নাম হলো : Line 

2 - Line হলো একটি সফটওয়্যার যেখানে আপনি whatsapp এর মত সব কিছু ব্যবহার করতে পারবেন।

এখানে : আপনার লগিন করা নিয়ম আলাদা। এখানে লগিন করতে হলে আপনার ইমেল লাগবে। আর এখন ইমেল সবার আছে আর সবাই ইমেল বানাতে পারে । আপনার ইমেল নাম্বার টি দেওয়ার পর। তারপর আপনার ইমেল Control পয়েন্ট এ চলে যাবেন। তারপর সেখানে দেখবেন আপনাকে line থেকে একটি কোড নাম্বার দিয়ে আপনি লগিন করতে হবে। লগিন করার পর। এখানে আপনি whatsapp এর মতো চ্যাট করতে পারবেন। আর এই Apps টি ব্যবহার করে ভিডিও কল এ কথা বললে মনে হবে। আপনি যার সাথে কথা বলতেছেন। তার সাথেই আছেন। তারপর আপনি ইচ্ছা করলে ফেসবুক এর সাথে কানেষ্ট করতে পারবেন। যখন আপনি ফেসবুক এর সাথে কানেষ্ট করবেন। তখন দেখতে পাবেন। আপনার ফেসবুক এ কোনো ফ্রেন্ড যদি Line ব্যবহার করে থাকে। তাহলে সেখান থেকে তার সাথে কানেষ্ট হয়ে তারপর কথা বলতে পারবেন।

আমি নিজে ও  Line apps টি ব্যবহার করে থাকি। আমি এই।পছন্দ কোনো ধরনের ঝামেলা দেখি নাই। আশা করি ভবিষ্যৎ এ কোনো ধরনের ঝামেলা থাকবে না। 


আমার ৩য় নাম্বার apps টি হলো : Viber

3 - Viber হলো : Whatsapp O Line এর মত apps | এখানে আরো কিছু এক্সট্রা লাভ হলো : এখানে একটি সেটিং আছে। সেই সেটিং টি কানেষ্ট করে নিলেই। আপনি যখন কারোর সাথে কোনো কথা বলবেন। তখন সেই মেসেজ গোলা ডিলেট হয়ে যায়। কেউ ইচ্ছা করলে ও সেই মেসেজ গোলা Screenshort নিতে পারে না। কারণ এখানে অনেক নিয়ম কানুন আছে।

আমাদের সর্ব শেষ apps টি হলো : Google Duo

 4- Google Duo apps টি হলো : google এরই একটি অংশ যেখানে আপনি শুধু আপনার নাম্বার টি দিবেন তারপর কোড আসবে, কোড বসাবেন। আপনার ছবি দিবেন। আকাউন্ট গোলা শেষ।

যারা Google Duo apps টি ব্যবহার করে। তাদের নাম্বার টি আপনার কাছে থাকলে। তাদের সাথে শুধু অডিও ভিডিও কল করতে পারবেন। কিন্তু মেসেজ করতে পারবেন না। 
google ভবিষ্যৎ এ মেসেজ করার সিস্টেম টি সংযোগ করবে বলে। আমি মনে করি।

এখানে - আপনাকে High Quality Audio এবং ভিডিও কল করার অপশন পাবেন। Google বলে কথা বুঝতে হবে। 


এই ৪ টি সফটওয়্যার অনেক জনপ্রিয়। পৃথিবী সব দেশে এই সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয়। এই পর্যন্ত কেউ বলতে পারবে না। এই apps গোলা ব্যবহার করে কেউ কোনো অসুবিধার মধ্যে পড়েছে। 

এই ৪ টি Google এ Top 15  মধ্যে রেখেছে। আপনাকে অবশ্যাই এই apps গোলা ব্যবহার করে দেখা উচিত। 

আপনি যদি Imo সম্পকে জানতে চান। তাহলে এখানে ক্লিক করতে পারেন। এবং জানতে পারবেন Imo নিরাপদ appa কিনা।


আমাদের অন্য অন্য আর্টিকেল পড়ার অনুরত রইলো। 
অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো